এক ফায়ার ফাইটারসহ আরও দুই মৃত্যু, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৭



সীতাকুণ্ডের বিএম কন্টেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ আরও একজন, চট্টগ্রামে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এছাড়া, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের, শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে মারা গেছেন ফায়ার ফাইটার গাউসুল আজম। এ নিয়ে, এ ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৭ জনে দাঁড়িয়েছে।

রবিবার (১২ জুন) দুপুর ২টায় নগরীর বেসরকারি পার্কভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অগ্নিদগ্ধ নুরুল কাদের (৪৩) মারা যান। তিনি বিএম কন্টেইনার ডিপোতে কর্মরত ছিলেন।

পার্কভিউ হাসপাতালের ডিজিএম মো. হুমায়ুন কবির গণসমাধ্যমকে নুরুল কাদেরের মৃত্যুর কথা নিশ্চিত করেছেন।

হুমায়ুন কবির জানান, “চট্টগ্রামের বাঁশখালীর অধিবাসী নুরুল কাদের আমাদের হাসপাতালে আইসিইউতে ছিলেন। আজ দুপুর দুইটায় চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। স্বজনরা তার মরদেহ গ্রামের বাড়ি নিয়ে যাচ্ছেন।”

এর আগে, রবিবার ভোরে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায়, মারা যান ফায়ার ফাইটার গাউসুল আজম।

এ তথ্য জানিয়েছেন, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সদরদপ্তরের মিডিয়া সেলের ডিউটি অফিসার মো. শাহজাহান শিকদার।

“এ ঘটনায় এ পর্যন্ত ১০ জন দমকলকর্মী মারা গেছেন;” জানান ডিউটি অফিসার মো. শাহজাহান শিকদার



Source link

maria

এই যে, এই প্রবন্ধ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ. আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার, 10 বছর ধরে লিখছি, এবং একজন প্রযুক্তি প্রেমী।