ফেনী শহরের আবাসিক হোটেল থেকে আট রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ



বাংলাদেশের ফেনী শহরের একটি আবাসিক হোটেল থেকে আট রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (১০ জুন) বিকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সদর উপজেলার মহিপাল এলাকায় গোল্ডস্টার নামে আবাসিক হোটেল থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার আটজন হলেন; কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার কুতুপালং আশ্রয়শিবিরের নূর আহম্মদের ছেলে আবদুল মন্নান (২০), হামিদ হাসানের ছেলে আবদুস শুক্কুর (১৮), আবুল কালামের ছেলে মো. জামাল হোসেন (২২), বদি আলমের ছেলে সফি আলম (২৫), আবু সৈয়দের ছেলে মোহাম্মদ ইলিয়াছ (৩০), কবির আহম্মেদের ছেলে এনামুল হক (২১), বালুখালী এলাকার আশ্রয়শিবিরের আলী হোসেনের ছেলে নবী হোসেন (১৪) ও ফজল আহম্মদের ছেলে নূর হোসেন (১৮)।আগেতারা

ফেনী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুর রহীম জানান, “তিন-চার দিন আগে তারা কক্সবাজারের উখিয়া এলাকা থেকে, গোপনে ফেনী আসেন। এরপর, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনী শহরের মহিপাল এলাকায় পাশের গোল্ডস্টার নামের একটি আবাসিক হোটেলে ওঠেন। পুলিশ খবর পেয়ে এই আটজনকে আটক করে মডেল থানায় নিয়ে যায়। তাদের বিরুদ্ধে অনুপ্রবেশের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে।”

“আটকদের আদালতের মাধ্যমে ফেনী জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে;” জানিয়েছেন ফেনী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন।



Source link

maria

এই যে, এই প্রবন্ধ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ. আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার, 10 বছর ধরে লিখছি, এবং একজন প্রযুক্তি প্রেমী।