বগুড়ায় বিএনপির ৪৩৩ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ নেতার মামলা



বাংলাদেশের বগুড়া জেলার গাবতলীতে, আওয়ামীলীগ ও বিএনপি কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায়, থানা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোর্শেদ মিল্টনকে প্রধান অভিযুক্ত করে, ১৩৩ জনের নাম উল্লেখ করে এবং ৩ শ’ নেতাকমীকে অজ্ঞাত অভিযুক্ত করে মামলা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩১ মে) গাবতলী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজার রহমান পাইকাড় বাদী হয়ে, গাবতলী মডেল থানায় মামলা করেন।

গাবতলী মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত ) জামিরুল ইসলাম জানান, “থানা বিএনপির সভাপতি মোর্শেদ মিল্টন, সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক নতুনসহ ১৩৩ জনের নাম উল্লেখ করে এবং ৩ শ’ জনকে অজ্ঞাত অভিযুক্ত উল্লেখ করে, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজার রহমান পাইকাড় একটি মামলা করেছেন।”

থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক নতুন বলেন, “আওয়ামী লীগ কর্মীরা, দোকানপাট ও নিজ দলের কার্যালয়ে ভাংচুর করে আগুন দিয়েছে। এ ঘটনায় আমাদের পৌরসভার কাউন্সিলর হারুনসহ ১৫ জন আহত হয়েছে। উল্টো তারাই এখন বিএনপির নেতাকর্মীদের হয়রানি করার জন্য, উদ্দেশ্যমুলক মামলা করেছে।”

উল্লেখ্য, বিএনপির সম্মেলনে, বগুড়া জেলা মহিলাদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুরাইয়া জেরিন রনির দেয়া বক্তব্যকে কেন্দ্র করে, গত রবিবার (২৯ মে) বিএনপি ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। এতে উভয়পক্ষের ৩০ জন নেতাকর্মী আহত হন।



Source link

maria

এই যে, এই প্রবন্ধ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ. আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার, 10 বছর ধরে লিখছি, এবং একজন প্রযুক্তি প্রেমী।