বাংলাদেশের স্বার্থকে কেন্দ্র করেই আইপিইএফ নিয়ে পর্যালোচনা হচ্ছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন



বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, “সম্প্রতি চালু হওয়া ইন্দো-প্যাসিফিক ইকোনমিক ফ্রেমওয়ার্ক ফর প্রসপারটি (আইপিইএফ) কী সুবিধা দেবে, সে ব্যাপারে বিভিন্ন দিক পর্যালোচনা করছে বাংলাদেশ।”

রবিবার (১২ জুন) আইপিইএফ সম্পর্কে বাংলাদেশের অবস্থান সম্পর্কে জানতে, সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন।

ড. মোমেন বলেন, “আমরা আমাদের দেশের স্বার্থ রক্ষায় কাজ করব।”

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.মোমেন বলেন, “মুক্ত বাণিজ্যের জন্য ইন্দো-প্যাসিফিক এলাকায় সাপ্লাই চেইন এবং ইনক্লুসিভ ও ওপেন নেভিগেশনের বিষয়ে বাংলাদেশের কোনো পর্যবেক্ষণ নেই। আমরাও চাই সরবরাহ শৃঙ্খলে যেন কোনো ব্যাঘাত না ঘটে।”

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “এটি একটি ভালো লক্ষণ যে, আইপিইএফ অর্থপাচারের বিষয়টিতে জোর দিতে চায়। কারণ পশ্চিমা দেশগুলোর বেশিরভাগ ব্যাংক, তাদের গোপনীয়তা আইনের কারণে, বিদেশি নাগরিকদের অ্যাকাউন্টের তথ্য প্রকাশ করে না।”



Source link

maria

এই যে, এই প্রবন্ধ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ. আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার, 10 বছর ধরে লিখছি, এবং একজন প্রযুক্তি প্রেমী।