রাশিয়া ও চীনের নৃশংসতাকে উন্মোচন করার আহ্বান জানিয়েছে একটি মানবাধিকার গোষ্ঠী



একটি নেতৃস্থানীয় মানবাধিকার সংস্থা ইউক্রেনের নৃশংসতা কমানোর সর্বোত্তম উপায় হিসাবে রাশিয়ার অভ্যন্তরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের তদন্ত ও নথিভুক্ত করার জন্য একজন বিশেষ রেপটিয়ার নিয়োগের জন্য জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলকে আহ্বান জানিয়েছে।

আগামী সপ্তাহে কাউন্সিলের চার সপ্তাহের যে অধিবেশন শুরু হচ্ছে তার আগে হিউম্যান রাইটস ওয়াচের নির্বাহী পরিচালক কেনেথ রথ এই আবেদন করছেন।

তিনি বলেন,রাজনৈতিক ভিন্নমতের বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কঠোর দমন পীড়ন, রাশিয়ার মধ্যে বর্ধিত সেন্সরশিপ এবং ইউক্রেনে যুদ্ধের বিরোধিতা এবং সেখানে রাশিয়ার জনগণের নামে যে নৃশংসতা চালানো হচ্ছে, তার বিরোধিতা এড়াতে অপতথ্য সাজানো হয়েছে।

রথ বলেন, রাশিয়ার মানবাধিকার পরিস্থিতির উপর একজন বিশেষ রেপটিয়ার নিয়োগের ফলে এই অজ্ঞতার আবরণ উঠে যাবে। তিনি আরও বলেন,পুতিন রাশিয়ার জনগণের মতামত সম্পর্কে অত্যন্ত যত্নশীল এবং দেশের অভ্যন্তরে বাকস্বাধীনতা হ্রাস করার জন্য তার প্রচেষ্টাগুলি সবই ভিন্নমত কমানোর লক্ষ্যেই করা হচ্ছে ।

রথ বলেন, “যদিও পুতিন একজন স্বৈরাচারী, যদিও তিনি তার কোভিড-প্ররোচিত বিচ্ছিন্ন টেবিলের শেষে বসে আপাতদৃষ্টিতে নিজেই সিদ্ধান্ত নেন, তারপরও তিনি রাশিয়ার জনমতের প্রতি মনোযোগী। এবং তাই, ইউক্রেনে নৃশংসতাকে মোকাবেলা করার চেষ্টা করার লক্ষ্যে এক ধরনের এমন নৈতিক সামগ্রিক দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরবে যে রাশিয়ার জনগণ কথা বলতে সক্ষম।”

অন্য একটি প্রসঙ্গে রথ বলেন, হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচেলেট জিনজিয়াংয়ের গোপন বন্দী শিবিরে প্রায় ২০ লাখ উইঘুরকে ব্যাপকভাবে বন্দী করার জন্য চীনকে দায়ী করার একটি দুর্দান্ত সুযোগ হাতছাড়া করেছেন।

তিনি হাইকমিশনারের সাম্প্রতিক চীন সফরকে একটি চরম বিপর্যয় হিসাবে বর্ণনা করে বলেছেন, তিনি দক্ষতার সাথে বেইজিং তাঁকে নিয়ে খেলেছে এবং তিনি বেইজিংয়ের রূপরেখা সম্পূর্ণ রূপে গ্রহণ করেছেন।

রথ বলেন, “ম্যাডাম ব্যাচেলেটের কাছ থেকে কোনও নিন্দাসূচক বক্তব্য পাওয়া যায়নি, এমনকি জিনজিয়াং-এ সংঘটিত নৃশংসতার তীব্রতার সাথে কোন ক্রমেই তাঁর বক্তব্য সামঞ্জস্যপূর্ণ ছিল না। তিনি কখনই সেগুলোকে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ বলে অভিহিত করেননি।তিনি কখনই তাদের বেশি কিছু বলেননি।তিনি কেবল তার আলোচনার জন্য সেখানে ছিলেন।”

ব্যাচেলেট বলেন,গত মাসে তার চীন সফরের উদ্দেশ্য ছিল সিনিয়র কর্মকর্তাদের সাথে মানবাধিকার নিয়ে আলোচনা করার এবং অব্যাহত আলোচনার জন্য”পথ প্রশস্ত”করার একটি সুযোগ।



Source link

maria

এই যে, এই প্রবন্ধ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ. আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার, 10 বছর ধরে লিখছি, এবং একজন প্রযুক্তি প্রেমী।