শিক্ষায় বরাদ্দ ১৪ দশমিক ৭ শতাংশ



প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেটে (২০২২-২৩ অর্থবছর), শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে ৫ শতাংশ বেশি বরাদ্দের কথা জানান অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল।

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী জানান, “২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে বরাদ্দ ৯৪ হাজার ৮৭৮ কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে ৯৯ হাজার ৯৭৮ কোটি টাকা করা হয়েছে।”

অর্থাৎ, শিক্ষায় বরাদ্দ মোট প্রস্তাবিত বাজেটের ১৪ দশমিক ৭ শতাংশ।

বাজেট দলিল অনুযায়ী, প্রযুক্তি ছাড়া শুধুমাত্র শিক্ষার জন্য বরাদ্দ ২০২১-২২ অর্থবছরে ৭১ হাজার ৯৭৪ কোটি টাকা থেকে বেড়ে, ২০২২-২৩ অর্থবছরে ৮১ হাজার ৪৪৯ কোটি টাকা হয়েছে। অর্থাৎ, শিক্ষা খাতে বরাদ্দ এখনও জিডিপির দুই শতাংশেরও কম।

প্রস্তাবিত বাজেটে, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জন্য ৩১ হাজার ৭৬১ কোটি টাকা, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের জন্য ৩৯ হাজার ৯৬১ কোটি টাকা, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের জন্য ৯ হাজার ৭২৭ কোটি টাকা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের বিপরীতে ১৬ হাজার ৬১৩ কোটি টাকা এবং আইসিটি খাতের জন্য এক হাজার ৯১৬ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী বলেন, “সরকার শিক্ষাকে উন্নয়নের অন্যতম প্রধান কৌশল হিসেবে গ্রহণ করেছে। কোভিড-১৯ মহামারির সময়ে যে ক্ষতি হয়েছে, তা পুষিয়ে নিতে, শিক্ষা খাতে বিশেষ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।”



Source link

maria

এই যে, এই প্রবন্ধ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ. আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার, 10 বছর ধরে লিখছি, এবং একজন প্রযুক্তি প্রেমী।