সংসদ সদস্য বাহার আইনের ফাঁক-ফোকর ব্যবহার করছেন: নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা



রাশেদা সুলতানা বলেন, “তিনি (আ ক ম বাহাউদ্দনি বাহার) আইন অমান্য করে নির্বাচনী এলাকায় আছেন। আইনের কিছু ফাঁক-ফোকরকে তিনি ব্যবহার করছেন। আমাদেরও সময় আসবে, ওয়েট অ্যান্ড সি।”

সোমবার (১৩ জুন) কুমিল্লার ফয়জুন্নেছা বালিকা বিদ্যালয়ের অডিটোরিয়মে, প্রিসাইডিং অফিসারদের ব্রিফিংয়ে অংশগ্রহণ শেষে, সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা।

রাশেদা সুলতানা বলেন, “যদি ভোটের পরিস্থিতি ভালো না থাকে, তাহলে নির্বাচন স্থগিত করা হবে। নির্বাচন সুষ্ঠু করার জন্য আমাদের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা রয়েছে।”

নির্বাচন কমিশনার বলেন, “ভোটের পরিস্থিতি ভালোই আছে। কোন ধরনের খারাপ ঘটনা এখনও ঘটেনি। নির্বাচনের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সুষ্ঠু ভোটের জন্য যা যা করা দরকার, সবই করা হয়েছে।”

এক প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) আহসান হাবিব বলেন, “সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দনি বাহার একজন জনপ্রতনিধি। তারা আইন প্রণয়ন করনে। এখন তারাই যদি আইন না মানেন, তাহলে আর কি বলার আছে। তাকে তো আর আমরা টেনেহিঁচড়ে নামাতে পারি না। এখানে ইজ্জত গেলো কার আপনারাই বুঝুন।”

এসময়, কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী চৌধুরী, কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান ও জেলা পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।



Source link

maria

এই যে, এই প্রবন্ধ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ. আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার, 10 বছর ধরে লিখছি, এবং একজন প্রযুক্তি প্রেমী।