সিঙ্গাপুর সংলাপে যুক্তরাষ্ট্র-চীন সামরিক নেতাদের বৈঠক



যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন দায়িত্ব নেয়ার পর প্রথমবারের মতো শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সামরিক নেতারা আলোচনায় বসেছেন।

এশিয়ার প্রধান নিরাপত্তা বৈঠক শাংগ্রি-লা সংলাপের পার্শ্ব বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা সচিব লয়েড অস্টিন এবং চীনের জাতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী জেনারেল ওয়েই ফেংহে মুখোমুখি সাক্ষাৎ করেছেন। গত এপ্রিলে দুই নেতার মধ্যে ফোনে কথা হয়।

পেন্টাগনের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দুই নেতা উত্তর কোরিয়া এবং ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনসহ সম্পর্ক এবং আন্তর্জাতিক নিরাপত্তার বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন।

চীনের সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, এই বৈঠকে বেইজিং যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা করবে। বৈঠকের পর প্রতিরক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, আলোচনা “সুচারুভাবে” সম্পন্ন হয়েছে ।

তবে বিরোধ না হলেও দুই পক্ষের মধ্যে ঐকমত্যে না পৌঁছানোর বেশ কিছু ক্ষেত্র রয়েছে । যুক্তরাষ্ট্র প্রায় সমগ্র দক্ষিণ চীন সাগরে বেইজিং-এর দাবির পাশাপাশি তাইওয়ানের বিষয়ে সাম্প্রতিক সামরিক শক্তি প্রদর্শনের বিরোধীতা করছে।

চীন গণতান্ত্রিক, স্ব-শাসিত তাইওয়ানকে তার ভূখণ্ডের অংশ হিসেবে দাবি করে এবং প্রয়োজনে বলপ্রয়োগ করে একদিন তা দখল করার হুমকি দিয়েছে। বাইডেন প্রশাসন ইঙ্গিত দিয়েছে, চীন যদি এমন কিছু করে তবে তারা তাইওয়ানকে সামরিকভাবে সমর্থন করবে। তবে তারা যুক্তরাষ্ট্রের দীর্ঘ দিন লালিত “এক চীন ” নীতির পুনরাবৃত্তি করেছে।



Source link

maria

এই যে, এই প্রবন্ধ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ. আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার, 10 বছর ধরে লিখছি, এবং একজন প্রযুক্তি প্রেমী।