সীতাকুণ্ডের বিএম ডিপো পরিদর্শন করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের টিম



সীতাকুণ্ডের সোনাইছড়ি ইউনিয়নের কেশবপুরে বিএম ডিপোর রাসায়নিক বিষ্ফোরণে স্বাস্থ্য ঝুঁকির অবস্থা খতিয়ে দেখতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছে, বাংলাদেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একটি টিম। রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক (পরিকল্পনা) ডা.নাজমুল ইসলামের নেতৃত্বে, তদন্ত টিমের সদস্যরা শুক্রবার (১০ জুন) সকাল সাড়ে ১০ টায় ঘটনাস্থল বিএম ডিপো পরিদর্শন করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উপপরিচালক ডা. মো. সফিকুল ইসলাম, চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন মো. ইলিয়াছ চৌধুরী, কিডনি বিশেষজ্ঞ এনামুল হক শামীম, ডিএনসিসি ডেডিকেডেট কোভিড হাসপাতালের পরিচালক লেফটেনেন্ট কর্ণেল মো. মশিউর রহমান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. অনিন্দিতা শবনম কোরেশী, সহকারী পরিচালক ডা. মহিউদ্দিন আহমেদ, সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নূর উদ্দিন, ইভালুয়েটর ডা. ফাবলিনা নওশিন, আইএইচআর এর ডাটা ম্যানেজার রাকিবুল ইসলাম, বিসিআইসির ইন্ড্রাস্টিয়াল সেফটি এন্ড হেলথ ডিপার্টমেন্টের কেমিস্ট মো. জিয়াউল হক, ডেপুটি চিফ কেমিস্ট হুমায়ুন কবির।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও লাইন পরিচালক (পরিকল্পনা) ডা. মো. নাজমুল ইসলাম বলেন, “বিএম ডিপোতে রাসায়নিক বিষ্ফোরণ হয়েছে। আমাদের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখা রেডিয়েশন হেজার্ড এবং কেমিকেল হেজার্ড বিষয়ে কাজ করে। এখানে রাসায়নিক বিষ্ফোরণে কী ধরনের স্বাস্থ্য ঝুঁকি সৃষ্টি হয়েছে, তা খতিয়ে দেখতে আমরা এসেছি। এছাড়া, এই স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়া রোগীরা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কিভাবে চিকিৎসা নিচ্ছে তাও দেখব।”



Source link

maria

এই যে, এই প্রবন্ধ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ. আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার, 10 বছর ধরে লিখছি, এবং একজন প্রযুক্তি প্রেমী।