স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ ৫.৪ শতাংশ



স্বাস্থ্যখাতকে শক্তিশালী করা সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার বললেও, বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটে, স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ সামান্যই বাড়িয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) অর্থমন্ত্রী, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ খাতে ৩৬ হাজার ৮৬৩ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করেন, যা গত বছরের চেয়ে মাত্র ৪ হাজার ১৩২ কোটি টাকা বেশি। বিদায়ী অর্থবছর ২০২১-২০২২ এ বরাদ্দ ছিল ৩২ হাজার ৭৩১ কোটি টাকা।

নতুন বরাদ্দের মাধ্যমে স্বাস্থ্য খাতে মোট বাজেটের ৫.৪ শতাংশ পাওয়া গেছে, যা গত বছরের বাজেটে ছিল ৫.২ শতাংশ।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, “এই বরাদ্দ স্বাস্থ্য খাতের সার্বিক উন্নয়নের জন্য। বাংলাদেশ সরকার, স্বাস্থ্য খাতের সংস্কারের মাধ্যমে জীবন রক্ষা এবং অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের জন্য ক্রমাগত প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।”

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, “কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যবিধি এখনও কঠোরভাবে পালন করা, সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়া, পরিকল্পনা প্রণয়ন করা এবং স্বাস্থ্য খাতের দুর্বলতা কাটিয়ে উঠতে পর্যাপ্ত বাজেট বরাদ্দ করা হচ্ছে।”

অর্থমন্ত্রী বলেন, “অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় ছয়টি অগ্রাধিকার খাতের মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য হল- মানবস্বাস্থ্য, আত্মবিশ্বাস, কর্মসংস্থান, আয় এবং অর্থনৈতিক অবস্থা স্বাভাবিক পর্যায়ে ফিরিয়ে আনতে কোভিড-১৯ থেকে দ্রুত পুনরুদ্ধার। এই এজেন্ডাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে, বাংলাদেশ সরকার জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করে, অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড স্বাভাবিক রেখে, কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করে, জনগণের আস্থা বাড়ানোর চেষ্টা করছে।”



Source link

maria

এই যে, এই প্রবন্ধ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ. আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার, 10 বছর ধরে লিখছি, এবং একজন প্রযুক্তি প্রেমী।